‘ভ্যাকসিন তৈরি আগে নিজে নিজেই ধ্বংস হতে পারে করোনা’

‘ভ্যাকসিন তৈরি আগে নিজে নিজেই ধ্বংস হতে পারে করোনা’

পৃথিবীর সর্বত্র আজ বিজ্ঞান তথা বিজ্ঞানীদের জয়জয়কার। তারপরেও করোনা ভাইরাসের ভ্যাকসিন বাজারে আসতে কেন এত দেরি হচ্ছে! আসলে বিজ্ঞানীরা ঘরে বসে নেই, অবিরাম তারা চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন।

এই ভাইরাসের বিষাক্ত ছোবলে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে বিশ্ববাসী। প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত, বিশ্বব্যাপী মহামারি করোনা ভাইরাস ৩ লাখ ২০ হাজারের বেশি মানুষের জীবন কেড়ে নিয়েছে। আক্রান্ত হয়েছেন ৪৯ লাখ ৯ হাজারের বেশি মানুষ। আর তাদের মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ১৯ লক্ষ ১৭ হাজারের বেশি।
এই ভাইরাসের ভ্যাকসিন (টিকা) উদ্ভাবনের জন্য বিজ্ঞানীরা দিন-রাত কাজ করে যাচ্ছেন। অক্সফোর্ডে একটি ভ্যাকসিনের ট্রায়াল চলছে। চীনেও ভ্যাকসিন তৈরির কাজ চলছে। কিন্তু ভ্যাকসিন তৈরি করা নিয়ে যখন এত তোড়জোড় তখন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) সাবেক এক বিশেষজ্ঞ বলছেন, ভ্যাকসিন তৈরির আগেই প্রাকৃতিকভাবে পুড়ে করোনাভাইরাস শেষ হয়ে যেতে পারে। সম্প্রতি এক টুইট বার্তায় এমন সম্ভাবনার কথা জানান।

টুইট বার্তায় বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার ক্যান্সার প্রোগ্রামের সাবেক পরিচালক প্রফেসর কারল সিকোরা লিখেছেন, ‘করোনাভাইরাস চলে যাওয়ার সত্যিকারের সম্ভাবনা রয়েছে। কোনও টিকা তৈরির আগেই ভাইরাসটি প্রাকৃতিকভাবে পুড়ে ধ্বংস হয়ে যাবে। এর মানে নিজ থেকেই ভাইরাসটি ধ্বংস হয়ে যেতে পারে। আমরা সর্বত্র প্রায় এ ধরনের প্যাটার্নই দেখছি। আমার মনে হয়, অনুমানের চেয়ে আমাদের বেশি রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা রয়েছে।
তিনি লেখেন, ভাইরাসটি যাতে দ্রুত না ছড়ায় সেজন্য আমাদের কাজ করতে হবে। তবে একসময় এটি নিজেই আর ছড়াতে পারবে না।

তার এ দাবি নিয়ে অনেকে প্রশ্ন তুলছেন। এর জবাবে তিনি বলেন, আমার মতে, এটি একটি সম্ভাব্য পরিস্থিতি। কেউ নিশ্চিতভাবে বলতে পারছেন না ‘আসলে কী হবে?’ আমি বিশ্বাস করি এমন অজানা পরিস্থিতিতে এটি একটি সম্ভাবনা। তবে ভাইরাসের বিস্তার কমাতে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার প্রতি গুরুত্ব আরোপ করে তিনি বলেন, করোনা ঠেকাতে আমাদের সামাজিক দূরত্ব অব্যাহত রাখতে হবে।’

সংবাদটি ফেসবুকে শেয়ার করুন