অবশেষে নিলাম থেকে মুশফিকের ব্যাট কিনে নিলেন আফ্রিদি

অবশেষে নিলাম থেকে মুশফিকের ব্যাট কিনে নিলেন আফ্রিদি

অবশেষে বিক্রি হলো মুশফিকুর রহিমের নিলামে তোলা ব্যাটটি। ক্রেতা কোনো সাধারণ ব্যক্তি কিংবা ভক্ত নন। ব্যাটটি কিনেছেন কিংবদন্তী পাকিস্তানি ক্রিকেটার শহীদ আফ্রিদির ফাউন্ডেশন।

নিলামে ২০ হাজার ইউএস ডলারে (প্রায় ১৭ লাখ টাকায়) ব্যাটটি কিনে নেয় তারা। প্রাপ্ত পুরো অর্থ ব্যয় করা হবে করোনা যুদ্ধে।
বাংলাদেশের অন্যতম সেরা ব্যাটসম্যানের ব্যাটটি নিলামে তোলে নিবকো স্পোর্টস ম্যানেজমেন্টের সহযোগী প্রতিষ্ঠান স্পোর্টস ফর লাইভ। তারা ই-কমার্সভিত্তিক সাইট পিকাবো ডটকমের সঙ্গে চুক্তি করে। যেখানে গত ৯ মে রাতে ব্যাটটি নিলামে তোলা হয়।

গত বুধবার নিবকো এবং পিকাবো কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, ব্যাটটির নিলাম প্রক্রিয়া সাময়িকভাবে বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। মঙ্গলবার পর্যন্ত ৫৩টি বিড হয়েছে যেখানে ব্যাটটির মূল্য সর্বোচ্চ ৪১ লাখ পর্যন্ত উঠেছে।
নিবকোর এক কর্মকর্তা বলেছিলেন, এই দাম অস্বাভাবিক। আমরা দেখেছি, কিছু বিডার কৃত্রিমভাবে দাম বাড়িয়ে নিলামকে নষ্ট করার চেষ্টা করেছে। আমরা প্রতিবারে সর্বোচ্চ ১০ হাজার টাকা পর্যন্ত দাম বাড়ানো যাবে বলে নির্ধারণ করে দিয়েছিলাম। কিন্তু কেউ কেউ একবারেই ৮০ হাজার টাকা পর্যন্ত দাম তুলেছে। আমরা আশঙ্কা করছি, এটা প্রকৃত বিডারদের নিরুৎসাহিত করবে।

তবে শেষ পর্যন্ত প্রকৃত আগ্রহী পাওয়া গেল। প্রায় ১৭ লাখ টাকা আসছে ব্যাটটি বিক্রি থেকে। যার পুরোটাই খবর করা হবে করোনায় ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য।
পিকাবোর প্রধান নির্বাহী মনির তালুকদার সংবাদমাধ্যমকে বলেন, প্রাথমিকভাবে কিছু সমস্যার মুখোমুখি হলেও শেষ পর্যন্ত তারা সঠিক বায়ার পেয়ে গেছেন। আর এটি হলো- শহীদ আফ্রিদি ফাউন্ডেশন।
তিনি বলেন, আমরা শহীদ আফ্রিদি ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে অফিসিয়াল ইমেইল পেয়েছি। তারা ব্যাটটি ২০ হাজার মার্কিন ডলার দিয়ে কিনতে চায়।
২০১৪ সালে পাকিস্তানের জনপ্রিয় ক্রিকেটার শহীদ আফ্রিদি ফাউন্ডেশনটি প্রতিষ্ঠা করেন। এটি পাকিস্তানসহ বিভিন্ন দেশে জনহিতকর কাজ করছে। ক্রিকেটের স্মরণীয় ব্যাটটি সংগ্রহে রাখার জন্য কিনে রাখছে ফাউন্ডেশটি।
এই ব্যাট দিয়ে ২০১৩ সালে গল টেস্টে স্বাগতিক শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে নিজের প্রথম ডাবল সেঞ্চুরির করেছিলেন মুশফিক। নিলামে ব্যাটটির ভিত্তিমূল্য ধরা হয়েছিল ৬ লাখ টাকা

সংবাদটি ফেসবুকে শেয়ার করুন