প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের ভাইভা পরীক্ষায় এগিয়ে থাকার কৌশল

প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের ভাইভা পরীক্ষায় এগিয়ে থাকার কৌশল

সম্প্রতি প্রকাশ করা হয়েছে প্রাথমিকে নিয়োগের লিখিত পরীক্ষার ফলাফল। সারাদেশের মোট পরীক্ষার্থীর মধ্যে ৫৫ হাজারেরও বেশি চাকরি প্রার্থী মৌখিক পরীক্ষার জন্য নির্বাচিত করা হয়েছে। উক্ত পরীক্ষার্থী থেকে শেষ পর্যন্ত ১২ হাজার জনকে নির্বাচিত করা হবে। যারা পরবর্তীতে বিভিন্ন প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষকতা করবেন।এখন প্রশ্ন হলো, এত পরীক্ষার্থীদের মধ্যে থেকে কিভাবে নিজেকে সেরা ১২ হাজারে রাখবেন। একটু বুদ্ধি করে প্রস্তুতি নিলে আপনিও হতে পারেন একজন প্রাথমিক শিক্ষক।

এজন্যই যারা প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা-২০১৮ এর লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছেন এবং মৌখিক পরীক্ষার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছেন তাদের জন্য কিছু টিপস।আপনার চাকরি হওয়া বা না হওয়ার ৮০ শতাংশ নির্ধারণ হয়ে গেছে। ১০ শতাংশ সবার জন্য প্রযোজ্য এবং বাকি ১০ শতাংশ ভাগ্য এদিক সেদিক হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছেন।

জেনে রাখা ভালো, ভাইভা মোট ২০ নাম্বার। এর মধ্যে উপস্থিতি ৫ নাম্বার, এস‌এসসি ও এইচএসসি রেজাল্টের উপর ৫ নাম্বার, স্মার্টনেস ৫ নাম্বার এবং সাধারণ জ্ঞান ৫ নাম্বার।সুতরাং ভাইভার জন্য টেনশনের কিছু নাই। আপনার যা হ‌ওয়ার তা লিখিততে হয়ে গেছে। তারপরও আরো ভালো কিছু করার জন্য ভাইভার জন্য যে সমস্ত বিষয়ে উপর গুরুত্ব দিতে পারেন।

১. এলাকার বিশিষ্ট ব্যক্তি, ঐতিহাসিক নিদর্শন ও তার ইতিহাস, অবস্থান।২. ভাষা আন্দোলন, মুক্তিযুদ্ধ, বঙ্গবন্ধুর জীবনী ও কর্ম।

আমাদের গ্রুপে জয়েন হলে আপনি উপকৃত হবেন আশা করি

৩. স্নাতকে পঠিতব্য নিজ বিষয় সম্পর্কে ধারণা ।

৪. বাংলা ও ইংরেজি ব্যাকরণের উপর সাধারণ ধারণা ও মৌলিক গণিতের সম্যক জ্ঞান।
আরো একটা সহজ কৌশল হলো, যেদিন ভাইভা হবে সেদিন কিছু সময় আগে কেন্দ্রে উপস্থিত হয়ে জেনে নেওয়া ভালো যে ভাইভা বোর্ডে আজ সাধারণত কী কী প্রশ্ন করছে। সাধারণত সমপর্যায় এবং কাছাকাছি ধরনের প্রশ্ন প্রায় সবাইকেই করে থাকে

সংবাদটি ফেসবুকে শেয়ার করুন




Do NOT follow this link or you will be banned from the site!