গুগলে স্থায়ী চাকরির সুযোগ

গুগলে স্থায়ী চাকরির সুযোগ

২০২০ সালের মধ্যে বিশ্বজুড়ে ৩ হাজার ৮০০ স্থায়ী কর্মী নিয়োগের কথা জানিয়েছে গুগল নতুন নিয়োগ পাওয়া এ কর্মীদের গুগলের কাস্টমার কেয়ার সাপোর্ট বিভাগে পদায়ন করা হবে।

গুগলের গ্রাহকসেবার কার্যক্রম এতদিন তৃতীয় পক্ষের প্রতিষ্ঠানের (থার্ড পার্টি) মাধ্যমে পরিচালিত হয়ে আসছিল। তবে এটা নিয়ে বিভিন্ন মহল থেকে তীব্র সমালোচনার মুখে পড়তে হয় গুগলকে।

সমালোচকদের দাবি, বিশ্বজুড়ে বিভিন্ন খাতের ব্যবসা থেকে গুগল যে পরিমাণ মুনাফা করে, সে তুলনায় গ্রাহকসেবায় প্রতিষ্ঠানটির ব্যয় নগণ্য। বিভিন্ন সময় গ্রাহকসেবায় কোনো ত্রুটি হলে থার্ড পার্টির অজুহাতে দায় এড়ায় গুগল।

সমালোচনার মুখে গ্রাহকসেবা বাড়ানোর পরিকল্পনা সামনে এনেছে গুগল। এজন্য শুরুতেই প্রতিষ্ঠানটি এ-সংক্রান্ত দায়দায়িত্ব তৃতীয় পক্ষের প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে সরিয়ে নিজের নিয়ন্ত্রণে নেবে। সরাসরি গ্রাহকসেবা দিতে গেলে গুগলের কাজ বাড়বে। প্রয়োজন হবে নতুন কর্মীর। এ প্রয়োজনীয়তা থেকে বিশ্বজুড়ে ৩ হাজার ৮০০ কর্মী নিয়োগের ঘোষণা দিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি।

এক বিবৃতিতে গুগল জানিয়েছে, নতুন ৩ হাজার ৮০০ কর্মী নিয়োগের জন্য শিগগিরই প্রক্রিয়া শুরু হবে। ২০২০ সালের মধ্যেই এ প্রক্রিয়া সম্পন্ন হবে। নিয়োগপ্রাপ্তরা হবেন গুগলের স্থায়ী কর্মী। তাদের ইন-হাউস কাজ করতে হবে। প্রতিষ্ঠানের সব ধরনের সুযোগ-সুবিধা পাবেন নতুন নিয়োগপ্রাপ্ত এসব কর্মী।

গুগল অপারেশনস সেন্টারের ভাইস প্রেসিডেন্ট ট্রয় ডিকারসন বলেন, আগামী বছর যুক্তরাষ্ট্রের মিসিসিপিতে নতুন গুগল অপারেশনস সেন্টার স্থাপন করা হবে। ভারত ও ফিলিপাইনে এর কার্যক্রম সম্প্রসারণের পরিকল্পনা রয়েছে। এজন্য আমাদের নতুন কর্মী নিয়োগ দিতে হবে। বিষয়টি মাথায় রেখে ৩ হাজার ৮০০ স্থায়ী কর্মী নিয়োগের প্রক্রিয়া শুরু করছে গুগল।

সংবাদটি ফেসবুকে শেয়ার করুন




Do NOT follow this link or you will be banned from the site!