কানাডায় আগস্ট পর্যন্ত কর্মীদের বেতনের ভার সরকারের

কানাডায় আগস্ট পর্যন্ত কর্মীদের বেতনের ভার সরকারের

করোনাভাইরাস মহামারি নিয়ন্ত্রণে বিশ্বের বেশিরভাগ দেশেই চলছে লকডাউন। বেশিরভাগ ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ, যান চলাচল, ঘর থেকে বের হওয়ায় রয়েছে কড়া নিষেধাজ্ঞা। কানাডায়ও এর ব্যতিক্রম নয়। মহামারি এ করোনা ভাইরাসের কারণে গত মার্চ মাসে প্রায় ১ মিলিয়ন কর্মজীবী মানুষ চাকরি হারিয়েছেন। এমন পরিস্থিতিতে দেশটির প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো কর্মজীবীদের পাশে দাঁড়িয়েছেন।

কানাডায় আগামী আগস্ট মাস পর্যন্ত কর্মজীবীদের বেতনের ভার নিলো প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডোর সরকার।

শুক্রবারের ঘোষণা ট্ররুডোর। প্রকল্পের আওতায় যোগ্য প্রতিষ্ঠানগুলোর কর্মীদের ৭৫ শতাংশ মজুরি দেবে সরকার।

করোনা মহামারিতে ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানের কর্মীদের সহায়তায় জরুরি বেতন ভর্তুকি প্রকল্পের আওতায় নগদ অর্থ সহায়তা দেয়া হবে।

সেই হিসাবে সপ্তাহে প্রত্যেককে সর্বোচ্চ ৮৪৭ ডলার দেয়া হবে। করোনার কারণে সৃষ্ট সংকট মোকাবিলায় বিরোধী দল ডেমোক্র্যাটের পক্ষ থেকে প্রস্তাবিত তিন ট্রিলিয়ন ডলারের সহায়তা বিল কংগ্রেসের হাউস অব রিপ্রেজেন্টেটিভে পাস হয়েছে।

সিনেটে পাস হলেই রাজ্য ও স্থানীয় সরকারে কর্মরত কর্মীরা ও তাদের পরিবারের সদস্যরা সহায়তা পাবেন। এই বিলের আওতায় সহায়তা পাবেন বেকার ও ভাড়াটিয়ারাও।

একজনকে কমপক্ষে ১২০০ ডলার (প্রায় এক লাখ টাকা) করে দেয়া হবে। বিবাহিত হলে দ্বিগুণ পাবেন। এছাড়া তাদের ওপর নির্ভরশীল কেউ থাকলে তাদের জন্য একই পরিমাণ অর্থ দেয়া হবে।

কমপক্ষে একজন মানুষ তিনজন নির্ভরশীলের জন্য অর্থ পাবেন। সিটিভি নিউজ ও সিএনএন। কানাডায় যেসব প্রতিষ্ঠানের আয় মার্চে ১৫ শতাংশ এবং এপ্রিল-মে মাসে অন্তত ৩০ শতাংশ কমে গেছে তারাই বেতন প্রকল্পের আওতায় সহায়তার যোগ্য বলে বিবেচিত হবে। তবে প্রয়োজনে এ নীতিতে পরিবর্তন আনা হতে পারে বলে ইঙ্গিত দিয়েছেন কানাডার প্রধানমন্ত্রী।

সংবাদটি ফেসবুকে শেয়ার করুন




Do NOT follow this link or you will be banned from the site!