অগমেডিক্সে ‘কয়েক হাজার’ তরুণের কর্মসংস্থান হবে

অগমেডিক্সে ‘কয়েক হাজার’ তরুণের কর্মসংস্থান হবে

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ভেঞ্চার ক্যাপিটাল থেকে চিকিৎসা সেবায় চমকপ্রদ উদ্ভাবনী প্রতিষ্ঠান অগমেডিক্স বাংলাদেশ ১৬৫ কোটি টাকা বিনিয়োগ পেয়েছে। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় রাজধানীর পান্থপথে প্রতিষ্ঠানটির বাংলাদেশ কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে ব্যবস্থাপনা পরিচালক রাশেদ মুজিব এ তথ্য জানান।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, সিলিকন ভ্যালির শীর্ষ পর্যায়ের ভেঞ্চার ক্যাপিটাল প্রতিষ্ঠান রেডমাইল গ্রুপ, ম্যাককেজন ভেঞ্চার, ডিসিএম ভেঞ্চার, ওয়াক্সিয়াং হেলথকেয়ার ইনভেস্টমেন্টর প্রতিষ্ঠান এই বিনিয়োগ করেছে।

অনুষ্ঠানে অগমেডিক্স বাংলাদেশের ব্যবস্থাপনা পরিচালক রাশেদ মুজিব বলেন, ‘বিনিয়োগের মাধ্যমে অগমেডিক্সে ব্যাপক কর্মসংস্থান সৃষ্টি করা হবে। আগামী একবছরে প্রতিষ্ঠানের কর্মীসংখ্যা দ্বিগুণ এবং সেবা পরিধি বাড়ানোর মাধ্যমে ‘কয়েক হাজার’ তরুণের কর্মসংস্থান হবে।’

দেশীয় বাজারে ‘সিলিকন ভ্যালি’ রীতি প্রচলনের মাধ্যমে কর্মীদের জীবনমান উন্নয়নে বিনিয়োগের অর্থ ব্যয় হবে বলেও জানান তিনি। অগমেডিক্সে কর্মী নিয়োগের ক্ষেত্রে ২০২০ সালে দেশব্যাপী কর্মসূচি নেওয়া হচ্ছে এবং কর্মীদের ইংরেজি দক্ষতা উন্নয়ন, ইন্টারনেট ভিত্তিক অনুশীলন এবং দক্ষতা যাচাইকরণে নানা কর্মসূচির কথা জানান রাশেদ মুজিব।

অগমেডিক্সের সহ-প্রতিষ্ঠাতা বাংলাদেশি বংশোদ্ভুত প্রযুক্তি উদ্যোক্তা ইয়ান কাজী শাকিল ২০১২ সালে সানফ্রান্সিসকোতে অগমেডিক্স প্রতিষ্ঠা করেন। প্রতিষ্ঠার পরে থেকে ছয় বছরের প্রযুক্তিভিত্তিক উদ্যোগটি ৬০ মিলিয়ন ডলার বিনিয়োগের তথ্য প্রকাশ করে।

অগমেডিক্স সেবার মাধ্যমে একজন চিকিৎসক গুগল গ্লাস পরে রোগী দেখবেন এবং বাংলাদেশ থেকে দক্ষ স্ক্রাইবরা এ কথোপকথন সরাসরি দেখে ও শুনে চিকিৎসকদের গুরুত্বপূর্ণ ইলেক্ট্রনিক্স মেডিকেল রেকর্ড সম্পন্ন করার দায়িত্ব পালন করেন।

অগমেডিক্স যুক্তরাষ্ট্রের বড় পাঁচটি স্বাস্থ্যসেবা প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে প্রায় ১৭ মিলিয়ন ডলারের বিনিয়োগ পেয়েছে। অগমেডিক্স যুক্তরাষ্ট্রের ৩০টিরও বেশি অঙ্গরাজ্যে প্রাইমারি কেয়ার ডক্টর, স্পেশালিস্ট ও সার্জনদের সেবা দিয়ে আসছে। যারা প্রতিদিন প্রায় ৫ হাজার রোগী দেখেন।

সংবাদটি ফেসবুকে শেয়ার করুন




Do NOT follow this link or you will be banned from the site!